পরিকল্পের নাম : যুগল বীমা মেয়াদী (মুনাফাসহ)


ভূমিকা: এই পরিকল্পের অধীনে একজনের প্রিমিয়াম দিয়ে যৌথভাবে স্বামী এবং স্ত্রীর উভয়ের নামে বীমা গ্রহণ করা যায়। মেয়াদকালে (আল্লাহ না করুন) স্বামী / স্ত্রী দুইজনের যে কোন একজনের মৃত্যু হলে প্রিমিয়াম প্রদান বন্ধ হবে এবং অন্যজন বীমা অংক তৎসহ অর্জিত মুনাফাসহ প্রদান করা হয়।


বৈশিষ্ট্য:
  • যৌথভাবে স্বামী এবং স্ত্রীর নামে এই বীমা গ্রহণ করা হয়।
  • মেয়াদ: ১০, ১৫, ২০, ২৫, ৩০, ৩৫ বৎসর
  • প্রবেশকালীন বয়স: ২০ বৎসর ; মেয়াদপূর্তি বয়স: ৭০ বছর (সবোর্চ্চ)।
  • বীমা অংক : এই পরিকল্পে সর্বনিম্ন বীমা অংক ৫০,০০০/- টাকা (পঞ্চাশ হাজার টাকা) ।
  • প্রিমিয়াম নির্ধারন হবে বয়োজৈষ্ঠ্য ব্যাক্তির বয়স অনুযায়ী।

সুবিধা :

  • বীমার মেয়াদপূর্তি পর্যন্ত বীমা গ্রহিতাদ্বয় জীবিত থাকলে বীমা অংক অর্জিত বোনাসসহ বীমা গ্রহিতাদেরকে প্রদান করা হবে।
  • বীমার মেয়াদের মধ্যে স্বামী এবং স্ত্রী দুই জনের মধ্যে যে কোন একজন মৃত্যুবরণ করলে যিনি জীবিত থাকবেন তাকে বীমা অংক অর্জিত বোনাসসহ প্রদান করা হয়।
  • বীমার মেয়াদের মধ্যে স্বামী এবং স্ত্রী দুই জনের মধ্যে যে কোন একজন মৃত্যুবরণ করলে যিনি জীবিত থাকবেন তাকে বীমা অংক অর্জিত বোনাসসহ প্রদান করা হয়।বীমার মেয়াদের মধ্যে স্বামী এবং স্ত্রী উভয়ের মৃত্যু হলে বীমা অংক অর্জিত বোনাসসহ মনোনীত (গণ) ফারায়েজ অনুযায়ী ওয়ারিশ(গণ)/ উত্তরাধিকার(গণ) কে প্রদান করা হয়।
  • দুই বছর প্রিমিয়াম প্রদানের পর বীমা চালূ থাকলে প্রয়োজনে সমর্পণ মূল্যের সর্বোচ্চ ৯০% বিনিয়োগ সুবিধা সহজ শর্তে গ্রহণ করা যায়।
  • দুই বছর প্রিমিয়াম প্রদানের পর বীমা চালূ থাকলে প্রয়োজনে সমর্পণ মূল্যের সর্বোচ্চ ৯০% বিনিয়োগ সুবিধা সহজ শর্তে গ্রহণ করা যায়।কমপক্ষে দুই বছর প্রিমিয়াম প্রদান করার পর পলিসিটি সমর্পন মূল্য অর্জন করে।